এক ব্যক্তি একাধিক পদে আর নয়

একই ব্যক্তি একটি ক্রীড়া ফেডারেশনের বিভিন্ন পদে থাকেন। একাধারে ফেডারেশন কর্তা, কোচ ও জাজের ভূমিকায় দেখা যায় তাকে। একাধিক ক্রীড়া ফেডারেশনে এমন উদাহরণ রয়েছে।এতে স্বার্থের সংঘাত হয়। ফলে প্রতিযোগিতায় ও সাংগঠনিক কর্মকাণ্ডে বিতর্ক ও প্রশ্নের জন্ম হয়। বিশেষ করে জাতীয় অ্যাথলেটিক্সে অনেক সময় প্রথম, দ্বিতীয় স্থান নির্ধারণে জাজদের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন বিতর্কের ঊর্ধ্বে ওঠার চেষ্টা করছে।অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন সম্প্রতি সিদ্ধান্ত নিয়েছে নির্বাহী কমিটির কেউ জাতীয় দলের প্রশিক্ষক হতে পারবেন না। পাশাপাশি কোনো দল বা সংস্থার কোনো প্রশিক্ষক অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের প্রতিযোগিতায় বিচারকের ভূমিকায় থাকতে পারবেন না।ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুর রকিব যুক্তরাষ্ট্র থেকে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে বলেন, ‘অ্যাথলেটিক্সকে আরও নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ করার জন্য সভাপতি ও কার্যনির্বাহী কমিটির সম্মতিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা।’অ্যাথলেটিক্স ছাড়াও হ্যান্ডবল, কাবাডি, কারাতেসহ অনেক ফেডারেশনে কোচ, কর্মকর্তা, রেফারির দায়িত্বে দেখা যায় একই ব্যক্তিকে। অ্যাথলেটিক্স সংশ্লিষ্ট অনেকেই ফেডারেশনের কমিটির সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছেন।এই সিদ্ধান্ত কতটা কার্যকর হবে এবং কতদিন বহাল থাকবে, তা সময়ই বলে দেবে। অন্য ফেডারেশনগুলো অ্যাথলেটিক্সকে অনুসরণ করে কি না সেটাও দেখার বিষয়।

তথ্যসূত্র : যুগান্তর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *